স্তন বা ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসা

ব্রেস্ট টিউমারের হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা

স্তন বা ব্রেস্ট টিউমার যেকোনো বয়েসের বা যেকোনো শারীরিক বা মানসিক অবস্থার মহিলাদের জন্যই এক অজানা আতঙ্ক বা আশঙ্কার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। হবেই বা না কেন? কারণ স্তন বা ব্রেস্ট টিউমার সঠিকভাবে চিকিৎসা না করা হলে পরবর্তীতে তা ক্যান্সার এর মতো জীবন ধ্বংসকারী অসুস্থতা সৃষ্টি করে। হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা পদ্ধতি অত্যন্ত কার্যকর ও স্থায়ীভাবে স্তন বা ব্রেস্ট টিউমার নিরাময় করতে সক্ষম। নিচে ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসায় (Breast Tumour) ব্যবহৃত প্রধান কিছু হোমিওপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে তুলনামূলক আলোচনা করা হলো।

ব্যথাযুক্ত ব্রেস্ট টিউমারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত সেরা হোমিও ওষুধ

কোনিয়াম

স্তনের (এস্টিরিয়াসে), জরায়ুর ও পাকস্থলীর ক্যানসার জনিত রোগে, বিশেষ করে যদি ঐ স্থানগুলোতে আঘাত বা উপঘাতের ফলে রোগ উৎপন্ন হয় তবে কোনিয়ামে উপকার হয় ও রোগ আরোগ্য হয়।

সকল প্রকার টিউমারে, বিশেষ করে টিউমার সিরাস (Cirrhous) কঠিন বা অন্য কোন রকমের হোক না কেন যদি পাথরের মতো শক্ত হয় এবং ভার বোধ হয় এবং যদি আঘাতের ফলে উৎপন্ন হয়ে থাকে তাহলে কোনিয়াম অব্যর্থ।

স্তন বা ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসায় (Tumor in the breast) ব্যবহৃত ৩টি প্রধান হোমিও ওষুধ

কোনিয়ামসাইলিসিয়া উভয় ওষুধেই স্তনের কঠিনতা আছে। কোনিয়াম ডান দিকের এবং সাইলিসিয়া বাঁদিকের স্তনের গুটিকায় উপযোগী।

কার্বো এনিমেলিস এর মধ্যেও অধিকাংশ ক্ষেত্রে বাম পাশে ব্রেস্ট টিউমার হতে দেখা যায়। এতে স্তনে শক্ত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র গুটি বিশিষ্ট স্তনার্বুদ (mammary tumours) হয়ে থাকে।

এছাড়া তরুণ অবস্থায় যদি স্তনে অস্ত্রাঘাত করার মতো বেদনা থাকে, আবার প্রতি ঋতুকালে স্তনদ্বয় বড় হয়ে উঠে, বেদনা করে, স্পর্শকাতর বিশিষ্ট হয় এবং সামান্য ঠোকাঠুকি লাগলে বা হাঁটলেও বেদনা বাড়লে কোনিয়ামই বিশেষ ভাবে উপযোগী হয়।

স্তন, জরায়ু অথবা অন্য কোন স্থানের কঠিন তন্তুযুক্ত টিউমারে বা সিরাস (Cirrhous) টিউমারে কোনিয়ামের বেদনায় জ্বালা, হূলবিদ্ধকর বেদনা বা চিড়িকমারা লক্ষণ থাকে।

ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসা (Breast tumor treatment)

ফাইটোলাক্কা

ফাইটোলাক্কা স্তনের সন্দেহজনক ঢেলা (Suspicious Lumps) বা অর্বুদ (Tumours in the Breast) চিকিৎসায় ব্যবহৃত একটি শ্রেষ্ঠ হোমিও ওষুধ।

বিশেষ করে যদি ঐ প্রকার টিউমারের সাথে ব্রেস্ট বা স্তনে প্রচুর ব্যথা বিদ্যমান থাকে। এতে স্তন অত্যন্ত শক্ত, স্ফীত, গরম ও ব্যথাযুক্ত থাকে। ফাইটোলাক্কাতে স্তন টিউমারের সাথে বগলের গ্রন্থিগুলোতেও স্ফীতি ও বেদনা থাকে।

গ্রাফাইটিস

স্তনের মধ্যে পুরাতন শুকিয়ে যাওয়া ক্ষত চিহ্নের নীচে টিউমারের উৎপত্তি হলে সেই টিউমারের চিকিৎসায় গ্রাফাইটিস খুবই কার্যকরী একটি হোমিও ওষুধ। সাধারণত ক্ষতচিহ্ন গুলো কোন জীবাণু সংক্রমণ বা ফোঁড়া শুকিয়ে গিয়ে তৈরি হয়। এইরূপ অবস্থায় গ্রাফাইটিস ব্যবহারে টিউমার আরোগ্য হবার পাশাপাশি ক্ষতচিহ্ন মুছে যায়।

পালসেটিলা

যে সমস্ত মহিলাদের প্রায়ই মাসিকের সমস্যায় ভুগতে হয় তাদের স্তন বা ব্রেস্ট টিউমার চিকিৎসায় পালসেটিলা চমৎকার কার্যকরী। বিশেষ করে মাসিক দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ হয়ে থাকলে তার ফলশ্রুতিতে অনেকের স্তনে টিউমার বা টিউমার সদৃশ ঢেলা বা মাংসপিণ্ড দেখতে পাওয়া যায়। এধরনের মহিলাদের মাসিক প্রায়ই দুর্গন্ধ যুক্ত হয়ে থাকে।

পালসেটিলা সাফল্যের সাথে এদের অনিয়মিত মাসিকের সমস্যার সমাধান করে স্তন টিউমার নিরাময় করে থাকে।

ক্যালকেরিয়া ফ্লোর

শক্ত পাথরের মতো স্তন টিউমার চিকিৎসায় ক্যালকেরিয়া ফ্লোরকে প্রথম সারির ওষুধ হিসেবে গণ্য করা হয়।

ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসার্থে যোগাযোগ করুন-

মোঃ সাজু আহমেদ

ইমেইলঃ rahi.hpathybd@gmail.com

স্তন বা ব্রেস্ট টিউমারের হোমিও চিকিৎসা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *